গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় গল্পের ঝুরিয়ান ... গল্পেরঝুড়ি একটি অনলাইন ভিত্তিক গল্প পড়ার সাইট হলেও বাস্তবে বই কিনে পড়ার ব্যাপারে উৎসাহ প্রদান করে... স্বয়ং জিজের স্বপ্নদ্রষ্টার নিজের বড় একটি লাইব্রেরী আছে... তাই জিজেতে নতুন ক্যাটেগরি খোলা হয়েছে বুক রিভিউ নামে ... এখানে আপনারা নতুন বই এর রিভিও দিয়ে বই প্রেমিক দের বই কিনতে উৎসাহিত করুন... ধন্যবাদ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

সুখী মানুষ ০১

"পৌরাণিক গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান DL Mahmud Hasan (০ পয়েন্ট)



সুখী মানুষ লেখাঃ মমতাজ উদ্দীন আহমদ রূপান্তরঃ মাহমুদ মুন্না চরিত্র পরিচিতি:- মোড়ল.............৫০ বছর কবিরাজ...........৬০ বছর হাসু.................‌৪৫ বছর রহমত..............২০ বছর লোক...............৪০ বছর (মোড়লের অসুখ। বিছানায় শুয়ে ছটফট করছে। কবিরাজ মোড়লের নাড়ি পরিক্ষা করছে। মোড়লের আত্মীয় হাসু মিয়া আর মোড়লের বিশ্বাসী চাকর রহমত আলী মোড়লের অসুখ নিয়ে কথা বলছে।) হাসু :- রহমত,ও রহমত আলী... রহমত:- শুনছি। হাসু :-ভালো করে শোন.. ওই কবিরাজ যত নাড়ি দেখুক, তোমার মোড়লের নিস্তার নাই। রহমত:-ওমন ভয় দেখাবেন না। তাহলে আমি হাউমাউ করে কেঁদে উঠব। হাসু :- কাঁদ। মন উজার করে কাঁদ।তোমার মোড়ল একটা কঠিন লোক। আমাদের মানুষকে কত জ্বালিয়েছে। এই গরু কেড়ে এই ধান লুট করে তোমার মোড়ল আজ ধনী।মানুষের কান্না দেখলে সে হাসে। রহমত:-তাই বলে মোড়লের রোগ ভালো হবে না কেন...?? হাসু :- হবে না তো।মোড়ল যে অত্যাচারী, পাপী।মনের মধ্যে অশান্তি থাকলে ওষুধে কাজ হয় না। রহমত:- আর আজেবাজে কথা বলবেন না। কবিরাজ:-এত কোলাহল করো না। আমি রোগীর নাড়ি পরিক্ষা করছি। রহমত: ও কবিরাজ নাড়ি কি বলছে... মোড়ল বাঁচবে তো..? কবিরাজ: মুর্খের মতো কথা বলো না। মানুষ এবং প্রানী অমর নয়। আমি যা বলছি তা মনোযোগ দিয়ে শোন। হাসু: আমাকে বলুন আমি মোড়লের মামাতো ভাই। রহমত: মোড়ল আমার মনিব। কবিরাজ: এই নিষ্ঠুর মোড়লকে বাঁচাতে চাও তাহলে একটা কঠিন কাজ করতে হবে। হাসু: কি বাঘের চোখ আনতে হবে। রহমত:হিমালয় পাহাড় তুলে আনতে হবে। কবিরাজ: পাহাড়, চন্দ্র, সুর্য, নক্ষত্র কিছুই আনতে হবে না। মোড়ল: আর সহ্য করতে পারব না। জ্বলে গেল। হাড় ভেঙে গেল। আমাকে বাঁচাও। কবিরাজ: শান্ত হও। ও রহমত মোড়লের মুখে শরবত ঢেলে দাও। (রহমত মোড়লকে শরবত দিচ্ছে) হাসু: ওই মোড়ল জোর করে আমার মুরগি জবাই করে খেয়েছে। আমি আজ মুগির দাম নিয়ে ছাড়ব। মোড়ল: ভাই হাসু..এদিকে এসো। আমি সব টাকা দিয়ে দেব। আমাকে আগে বাঁচাও। কবিরাজ: মোড়ল তুমি আর কোনোদিন মিথ্যা কথা বলবে..?? মোড়ল আর বলব না। এই তোমার মাথায় হাত রেখে আমি প্রতোজ্ঞা করছি, আর কোনোদিন মানুষের সাথে জবরদস্তি করব না কবিরাজ: লোভে পাপ পাপে মৃত্যু। আর কোনো দিন লোভ করবে..?? মোড়ল: না লোভ করব না। আমাকে শান্তি দাও। সুখ দাও। কবিরাজ: তাহলে মনের সুখে শুয়ে থাক। আমি ওষুধের কথা চিন্তা করি। মোড়ল: সুখ কোথায় পাব? আমাকে সুখ এনে দাও। হাসু: অন্যের মনে দুঃখ দিলে কোনোদিন সুখ পাবা না। মোড়ল: আমার এতো টাকা এতো বড় বাড়ি। তবুও আমার মনে সুখ নাই কেন.?? কবিরাজ: চুপ কর। যত কোলাহল করবে তত দুঃখ বাড়বে। হাসু, এদিকে এস। আমার কথা শোন। মোড়লের অসুখ ভালো হতে পারে যদি.... রহমত: যদি কি? করিরাজ: আজ রাত্রির মধ্যেই.... হাসু: কি করতে হবে?? কবিরাজ: যদি একটা ফতুয়া আনতে পার। চলবে..... প্রিয় ভাই বোনেরা এটা মমতাজ উদ্দীন আহমদের লেখা গল্প। আমি তা রুপান্তর করে লিখেছি। ভালো হলে কমেন্ট করবেন। কেউ বাজে কমেন্ট করবে না। প্লিজ...


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ২৭১ জন


এ জাতীয় গল্প

→ মুসলীমরা বলে কোরআনের আলোকে দেশ চালাতে,এটা অমুসলীমদের জন্যও কীভাবে কল্যান বয়ে আনবে?মানুষ তার ইচ্ছামত চালাবে স্রষ্টার বানী কেন গ্রহন করবে?
→ সৃষ্টিকর্তা যদি দয়ালুই হন তাহলে এত মানুষ না খেয়ে মারা যায় কেন?এর দায় তো স্রষ্টারই।
→ হায়রে মানুষ, তাদের কি ছিলনা কোনো হুশ!
→ ২০১ গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদ
→ বাড়িয়ালার মেয়েটি part-01
→ সাফল্যের চাবিকাঠি পর্ব {01}
→ তোতাপাখি ও মানুষ
→ ভুল মানুষ – মাসুদ আনোয়ার - ২
→ রুম নং ১০১
→ ভুল মানুষ - মাসুদ আনোয়ার - ১

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...