গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় পাঠকগন আপনাদের অনেকে বিভিন্ন কিছু জানতে চেয়ে ম্যাসেজ দিয়েছেন কিন্তু আমরা আপনাদের ম্যাসেজের রিপ্লাই দিতে পারিনাই তার কারন আপনারা নিবন্ধন না করে ম্যাসেজ দিয়েছেন ... তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ কিছু বলার থাকলে প্রথমে নিবন্ধন করুন তারপর লগইন করে ম্যাসেজ দিন যাতে রিপ্লাই দেওয়া সম্ভব হয় ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

ঘোড়া ও ছাগলের গল্প

"ওয়েস্টার্ন গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Sayemus Suhan (৯ পয়েন্ট)



একজন কৃষকের গল্প বলি, যার একটি ঘোড়া ও একটি ছাগল ছিলো। একদিন ঘোড়াটি অসুস্থ হয়ে পড়লে কৃষক খুবই উদ্বিগ্ন হলেন।ওটি তার অতি আদরের। তিনি একজন প্রাণী-ডাক্তার ডাকলেন। ডাক্তার অসুস্থ ঘোড়াকে পরীক্ষা করে বললেন, “ঘোড়াটি ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে। একে তিন দিন পর্যন্ত ঔষধ দিয়ে দেখতে হবে। যদি অবস্থার উন্নতি না হয়, তবে সংক্রমণ এড়ানোর জন্য মেরে ফেলতে হতে পারে।” পাশে থাকা ছাগলটি সবকিছু দেখছিলো। পরদিন ঘোড়াটিকে ঔষধ দেওয়া হলো। সবাই চলে গেলে পর, ছাগলটি ঘোড়ার কাছে এসে বললো, “সাহস করো,বন্ধু! গায়ে শক্তি নিয়ে ওঠে দাঁড়াও। নয়তো ওরা তোমাকে ঘুম পারিয়ে দেবে।” দ্বিতীয় দিনেও ঔষধ দিয়ে তারা চলে গেলো। ছাগলটি আবারও কাছে এসে বললো, “আরে ওঠো না, ভাই! তুমি তো সত্যিই মারা পড়বে দেখছি! এই যে আমি তোমাকে সাহায্য করছি, তুমি শক্তি দাও। এক… দুই… তিন।” তৃতীয় দিনে ডাক্তার এসে ঔষধ দিলেন এবং মালিককে বললেন, “আপনার ভাগ্য খারাপ। ঘোড়াটিকে মনে হয় বাঁচানো যাবে না। আগামিকাল ঘোড়াটিকে সত্যিই মাটিতে পুঁতে দিতে হবে, না হলে ভাইরাস ছড়িয়ে মানুষ ও প্রাণী সকলের ক্ষতির কারণ হবে। তারা চলে যাবার পর ছাগলটি কাছে এসে বললো, “শুনো বন্ধু ঘোড়া! এখন না হলে আর হবে না। তুমি চেষ্টা করো, আমিও শক্তি দিচ্ছি। এই যে…এক… দুই…তিন, হ্যাঁ আস্তে আস্তে শক্তি দাও। আরে বাহ্! তুমি তো পারছো…হ্যাঁ…আরেকটু। হাহ্! এই যে তুমি তো দাঁড়িয়ে গেছো, ভাই! চমৎকার!…তুমি তো অসাধ্য সাধন করলে! এবার দেখো তো হাঁটতে পারো কি না!” কৃষক হঠাৎ এসে উপস্থিত! তিনি এসে দেখলেন, তার ঘোড়াটি মাঠজুড়ে দৌড়াচ্ছে। এ দৃশ্য দেখে খুশিতে আত্মহারা কৃষক চিৎকার করে বলতে লাগলেন, “তোমরা এসে দেখো…আমার ঘোড়াটি সুস্থ হয়ে গেছে! এটি দৌড়াচ্ছে। আমি মুগ্ধ! ছাগলটিকে জবাই করে আমরা একটি ভোজের আয়োজন করে মজা করবো!” ব্যক্তিগত জীবনে এরকম অভিজ্ঞতা পেয়েছি অনেকবার। দেখেছি আরও বেশি। ভালো থাকাটাই সবচেয়ে কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভালো করতে থাকাটা জীবনের কঠিনতম সংগ্রামের একটি। কর্মজীবনে যারা গাধার খাটুনি খেটেও যথার্থ মূল্যায়ন পাচ্ছেন না, তবু পৈত্রিক স্বভাব নিয়ে প্রতিষ্ঠানের জন্য শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন, সেসব মানব সন্তানের জন্য গল্পটি উৎসর্গ করছি। *গল্পটি মূল ইংরেজি থেকে সংগৃহীত।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৯৩১ জন


এ জাতীয় গল্প

→ হঠাৎ ফিরে পাওয়া তারপর.............
→ চুক্তি নিয়ে তালেবান আমীরের আহবান ও অনুভূতি
→ একটি সফলতার গল্প
→ জান্নাতের সঙ্গী সাথী ও হুর!!!!!
→ রূপকথার গল্প THE FAIRY TALES
→ উদ্দেশ্য যখন গল্প লিখা
→ মুসলীমরা বলে কোরআনের আলোকে দেশ চালাতে,এটা অমুসলীমদের জন্যও কীভাবে কল্যান বয়ে আনবে?মানুষ তার ইচ্ছামত চালাবে স্রষ্টার বানী কেন গ্রহন করবে?
→ ~দ্য আলকেমিস্ট-পাওলো কোয়েলহো(বুক রিভিউ)।
→ আজও মনে গভীর বনে
→ অনুপ্রেরণাময় গল্প ২

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...